1. multicare.net@gmail.com : deshsangbadtv.com :
শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ০৪:৪৩ অপরাহ্ন

চান্দিনায় নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে যুবকের হাত ধরে পালিয়েছে প্রবাসীর স্ত্রী

আলিফ মাহমুদ কায়সার কুমিল্লা প্রতিনিধি
  • আপডেট: সোমবার, ১৯ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৫১ বার পড়া হয়েছে

কুমিল্লা চান্দিনায় নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে যুবকের হাত ধরে পালিয়েছে প্রবাসীর স্ত্রী।
সোমবার চান্দিনা উপজেলার জোয়াগ ইউনিয়নের কুদুটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় স্বামী ইউনুছ ও শশুর আবুল বাশার বাদী হয়ে ওই রাতেই কুমিল্লা ও কচুয়ার পৃথক দুটি অভিযোগ পত্র দাখিল করেন।

অভিযোগ পত্রে বলা হয় ওই গ্রামের মৃত তাজুল ইসলামের তৃতীয় ছেলে প্রবাসী ইউনুছ মিয়ার স্ত্রী হাজেরা বেগম (২৫) আত্মীয়ের সুবাদে কচুয়া উপজেলার বদরপুর গ্রামের মোল্লা বাড়ীর মফিজুল ইসলামের ছেলে ইয়াকুব এর সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে।
৬ মাস আগে রাতে প্রবাসী ইউনুছের নিজবাড়ী কুদুটিতে ইয়াকুব এলে সংবাদ পেয়ে এলাকাবাসী গতিবিধি জেনে ইয়াকুব ও ইউনুছের স্ত্রী হাজেরাকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পায়।
সম্মানহানী ভয়ে পারিবারিক ও স্থানীয় মেম্বার আলমগীরের মাধ্যমে তা মীমাংসা হয়।
পরে গত ১২ এপ্রিল সোমবার ইউনুছের শশুর বাড়ী বদরপুর মজুমদার বাড়ী থেকে সন্ধ্যায় গচ্ছিত টাকা সহ ১২ ভরি ওজনের স্বর্ণালংকার নিয়ে চাচাতো ভাই প্রেমিক ইয়াকুবের হাত ধরে অজানার উদ্দেশ্যে
পালিয়ে যায় তার স্ত্রী হাজেরা। রেখে যায় ৬ ও ৪ বৎসর বয়সের দুই ভাই বোন।সাথে নিয়ে যায় ২ বৎসরের ছোট্ট শিশু সাইফানকে। এদিকে শিশু দুইটিকে নিয়ে বিপাকে পড়েছেন প্রবাসী ইউনুছের আম্মা আয়েশা।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে হাজেরার পিতা আবুল বাশার জানান আমার মেয়ে হাজেরা আক্তার আমার নিজ মজুমদার বাড়ী হইতে জমি ক্রয় করার জন্য ১২ এপ্রিল সোমবার বিকেল ৩ টায় তাহার স্বামীর বাড়ী কুদুটি যাওয়ার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তাকে আর পাওয়া যায়নি। তার মোবাইল নাম্বারও বন্ধ রয়েছে। পরক্ষনে জানতে পারি সে ইয়াকুবের সাথে চলে গেছে।

এ ব্যাপারে কচুয়া থানার মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এম এ রউখ খান জানান, লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে, আমরা প্রাথমিক তদন্ত করছি এবং দুই থানায় নোটিশ পাঠাবো। তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান দেন তিনি।

এদিকে ইউনুছের ছোট ভাই বিল্লাল হোসেন ও
প্রবাসী ইউনুছ প্রশাসন ও স্থানীয়দের হস্তক্ষেপে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করছে ইয়াকুবের।
তিনি বলেন ইয়াকুবের মত এমন নরপিশাচ নারী লোভী ছেলে আর কোন প্রবাসীর সংসার যেন ধ্বংস করতে না পারে সেদিকে প্রশাসন ও এলাকাবাসীর সুদৃষ্টি কামনা করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় ইয়োলো হোস্ট

ওয়েবসাইট নকশা: ইয়োলো হোস্ট