1. multicare.net@gmail.com : deshsangbadtv.com :
বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২১, ১০:৩৬ পূর্বাহ্ন

বেনাপোলে স্বামী মৃত্যুর ৪ বছর পর পুত্র সন্তানের জন্ম

আসাদুজ্জামান রিপন (যশোর):
  • আপডেট: বৃহস্পতিবার, ৭ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১১০ বার পড়া হয়েছে

অবৈধ পুত্র সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের দাবীতে সমাজের গন্যমান্য ব্যক্তিদের কাছে ধন্না দিচ্ছে বেনাপোল পৌরসভার এক বিধবা নারী। বেনাপোলের দিঘীরপাড় এলাকার জনৈক রেজাউল ইসলাম গ্যারা ভয়ভীতি দেখিয়ে একাধিক বার ধর্ষন করেছে ওই বিধবা নারীকে।

বেনাপোল পোর্ট থানাধীন দিঘীরপাড় গ্রামের জনৈকা কুলসুম বেগম চার বছর আগে স্বামীকে হারিয়ে কোলের চার সন্তানকে নিয়ে দাদা শ্বশুর বীরমুক্তিযোদ্ধা রবিউল ইসলামের বাড়িতে বসবাস করতেন। বিধবা ওই নারীর প্রতি নজর পড়ে প্রতিবেশি লম্পট রেজাউলের। বিভিন্ন রকম প্রলোভন এবং ভয়ভীতি দেখিয়ে একাধিক বার ধর্ষন করে তাকে। এক পর্যায়ে কুলসুম বেগম গর্ভবতি হয়ে পড়লে রেজাউলকে বিয়ের জন্য চাপ দিতে থাকে কিন্তু রেজাউল ইসলাম গ্যারা অস্বীকার করতে থাকে।

ভুক্তভোগী বিধবা কুলসুম বেগম বলেন, রেজাউল প্রায় রাতে তার ঘরে ঢুকে ভয়ভীতি দেখিয়ে অবৈধ মেলা মেশা করে। আমি একদিন রাজি হয়নি বলে আমাকে মারধোর করে। এরপর এই সন্তানটির জন্ম হয়। আমি সামাজের গন্যমান্য ব্যক্তিদের কাছে এর সঠিক বিচার চাই।

বিধবা নারীর শ্বশুর বীরমুক্তিযোদ্ধা রবিউল ইসলাম এর ছেলে রহমত আলী বিশ্বাস বলেন, রেজাউল ইসলাম গ্যারা অনেক রাত পর্যন্ত আমাদের বাড়ির চারি পাশে ঘুরাঘুরি করে। ঘরের চালে ও দরজায় ইট মারে। রেজাউল আমার বিধবা বৌমাকে কমলা বেলু সহ বিভিন্ন খাবার খাওয়ার জন্য বলে। আমার বৌমাকে মারধোর করে রেজাউল। রেজাউল আমার বৌমাকে জিবন নাশের হুমকি দিয়ে এই কাজ করলো। আমি সুষ্ঠু বিচার চাই আমি মুক্তিযোদ্ধার সন্তান।

এবিষয়ে দিনভর রেজাউলের সাথে মুঠো ফোনে এবং তার বাড়িতে গিয়ে তার কোন খোঁজ পাওয়া পায়নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় ইয়োলো হোস্ট

ওয়েবসাইট নকশা: ইয়োলো হোস্ট