1. info@deshsangbadtv.com : deshsangbadtv.com :
  2. deshsangbadtv@gmail.com : deshsangbadtv :
  3. deshsangbatvd@gmail.com : Sumon Khan : Sumon Khan
অবরোধ শেষে কাল থেকেই কুয়াকাটার বাজারে দেখা মিলবে তাজা রূপালী ইলিশ। » Desh Sangbad TV
শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০৭:৩৪ অপরাহ্ন

অবরোধ শেষে কাল থেকেই কুয়াকাটার বাজারে দেখা মিলবে তাজা রূপালী ইলিশ।

জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, কুয়াকাটা-কলাপাড়া (পটুয়াখালী)-প্রতিনিধি:-
  • আপডেট : বুধবার, ৪ নভেম্বর, ২০২০
  • ৪৭ বার পড়া হয়েছে


কুয়াকাটা মহিপুর আলিপুরে ব্যস্ত সময় পার করছেন জেলে পাড়ার মানুষ।
গত ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে আজ (মঙ্গলবার) মধ্যরাত থেকে ইলিশ শিকারে সাগরে যাত্রার প্রস্তুতি নিয়েছে কুয়াকাটা মহিপুর আলিপুরের সমূদ্র উপকূলীয় জেলেরা ।

সরেজমিনে আজ (বুধবার) কলাপাড়া উপজেলায় বিভিন্ন জেলে পল্লীতে গিয়ে দেখাগেছে, ২২ দিন অপেক্ষার পরে বিভিন্ন ঘাট থেকে জেলেরা মাছ শিকারের উদ্দেশে সাগরে যাত্রা শুরু করার জন্য বাজারসহ আনুষঙ্গিক কাজ সম্পন্ন করে সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছেন। বুধবার মধ্যরাত থেকেই ইলিশ শিকারে জেলেরা সাগরে যাত্রা শুরু করবে।

জানা গেছে, মা ইলিশের বাধাঁহীন প্রজনন এবং সকল প্রজাতির মাছের উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য ১৪ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ২২দিনের সকল প্রকার মাছ শিকারে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে মৎস্য অধিদপ্তর। আজ ৪ নভেম্বর রাত ১২ টার পর পরই মৎস্য শিকারীরা নেমে পড়বেন রূপালী ইলিশের সন্ধানে। পটুয়াখালী জেলা কলাপাড়া উপজেলায়, উপকূলীয় অঞ্চলের হাজার হাজার জেলে তাদের সকল প্রকার প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সম্পন্ন করেছেন। আলীপুর, মহিপুর ও কুয়াকাটা অঞ্চলের জেলেরা তাদের ট্রলার ও জাল মেরামতের পাশাপাশি ইঞ্জিণের কাজে শেষ সময়ের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

দেশের অন্যতম মৎস্য বন্দর কুয়াকাটার জেলে মোঃ রশিদ হাওলাদার মাঝি বলেন, সরকার ঘোষিত ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞা আমরা পালন করেছি। আমরা ইতোমধ্যে ইলিশ মাছ ধরার সকল প্রস্তুতি শেষ করেছি। নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ায় অপেক্ষায় আছি। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে আগামী ৫ নভেম্বর সমুদ্রে যাবো।
মহিপুর মৎস্য বন্দরের একাধীক জেলের সাথে কথা বলে জানা গেছে, এবছর ইলিশের ভরা মৌসুমে মাছ না পেয়ে উপকূলের জেলেরা দেনাগ্রস্থ হয়ে পরেছেন। তারপরও সরকারের আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে মাছ শিকার থেকে বিরত ছিলো। অবরোধ শেষে সমুদ্রে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ ধরা পরলে দেনা পরিশোধ করতে পারবেন তারা।
এ বিষয়ে কলাপাড়া উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ জহিরুন্নবী বলেন, উপকূলের জেলেরা নিজেরাই অনেকটা সচেতন হয়েছেন। তিনি আরো বলেন এবার মাছগুলো হবে অনেকটা সুস্বাদু এবং আকারে অনেক বড় হবে, আমরা আশাবাদী এবার অনেকটা উপকৃত হবে জেলেরা।#####

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© স্বর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের যোকোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

প্রযুক্তি সহায়তায় মাল্টিকেয়ার